রাক্ষসের রূপ নিয়েছে নদী , নজর নেই প্রশাসনের

66

মালদা,০৮ জুলাই : বিগত বছরের ঘাঁ যেন এখনও তাজা । মরসুমের শুরুতেই রাক্ষসের রূপ নিয়েছে নদী । উত্তরবঙ্গ জুড়ে টানা বৃষ্টির জেরে বিপদ সীমার কাছে এসে পৌঁচেছে মালদার গঙ্গা-ফুলহারের জলস্তর । ইতিমধ্যেই নদীর জল ঢুকতে শুরু করেছে রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের বিস্তীর্ণ গ্রামের এলাকাগুলিতে ।ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে পাড়ে ভাঙন , যা ভয়াবহ রূপ নেবে তা বিগত বছরের ভালোই অভিজ্ঞতা রয়েছে গ্রামবাসীদের ।বন্যা পরিস্থিতি রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের মহানন্দা ও বিলাইমারী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার বিস্তীর্ণ গ্রাম জুড়ে । গৃহবন্দী প্রায় ৭-৮ হাজার মানুষ । তবে এলাকায় এখনও পৌঁছায় নি কোনও সরকারি সাহায্য বলেই অভিযোগ । যদিও ব্লক প্রশাসনের দাবি এখনও পর্যন্ত কোনও বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি ।বিগত কয়েক বছর ধরে মালদা জেলার ভাঙন ও বন্যা নজর কেড়েছে রাজ্য-কেন্দ্র দুই সরকারের । গত বছর রাজ্যের অন্যান্য জেলার মতো বন্যায় প্লাবিত হয়েছিল মালদা জেলার ১৫ টি ব্লকই,বাদ পড়েনি শহর এলাকা গুলিও । নিজের সর্বস্ব হারিয়ে পথের ভিখেরীও হয়েছিল হাজার হাজার পরিবার ।বিঘার পর বিঘা চাষের জমি , বাড়ি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিজের গর্ভে ধারণ করেছিল গঙ্গা-ফুলাহার । এবছর মরসুমের শুরুতেই বন্যা পরিস্থিতি জেলায় ।রতুয়া ১ নম্বর ব্লকের মহানন্দা ও বিলাইমারী গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার নতুন বিলাইমারী , সম্বলপুর , খাসমারী সহ ১০-১২ টি গ্রামে জল ঢুকতে শুরু করেছে । উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছে পরিবার গুলি । এখনও কোনও রকম সাহায্য গ্রামে এসে না পৌঁছনোই প্রশাসনের উদাসীনতাকেই দায়ী করছে এলাকাবাসী । (এনএ)

 

Please follow and like us: