প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও প্লাস্টিকজাত জলের বোতল নিয়ে সংরক্ষিত এবং অসংরক্ষিত জঙ্গল ও পার্কে প্রবেশ করলে স্পট ফাইন করবে বনদপ্তর

ap 11

জলপাইগুড়ি, ২২ অগাস্ট: প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ও প্লাস্টিকজাত জলের বোতল বা অন্য প্লাস্টিকের প্যাকেট নিয়ে সংরক্ষিত এবং অসংরক্ষিত জঙ্গল ও পার্কে প্রবেশ করলে স্পট ফাইন করবে বনদপ্তর।উত্তরের সমস্ত জাতীয় উদ্যান,অভয়ারন্য ছাড়াও অন্য পার্কের জন্য নির্দেশ জারি করা হয়েছে বলে বনমন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মন জানিয়েছেন।

গোরুমারা,জলদাপাড়া,সিঙ্গালিলা,সিঞ্চল,নেওড়া ভ্যালী,মহানন্দা অভয়ারন্য এবং জাতীয় উদ্যান, বক্সা ব্যাঘ্র সংরক্ষন প্রকল্প ছাড়াও সারা রাজ্যের বিভিন্ন বনদপ্তরের অন্যান্য বিভাগের অধীন পার্কের ক্ষেত্রেও এই নিষেধাজ্ঞা লাঘু করা হয়েছে বলে বনমন্ত্রী জানিয়েছেন।

মন্ত্রী জানান,কয়েকবছর আগেই বনদপ্তর থেকে সুন্দরবনকে বায়োষ্ফীয়ার রিজার্ভ বলে ঘোষনা করেছে।সুন্দরবনের ক্ষেত্রেও প্লাস্টিক জাত সামগ্রীর ব্যবহার বা নিয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।আমরা চাই প্লাস্টিক ফ্রী জোন ঘোষনা করার ক্ষেত্রে কঠোর নিয়ম যেন পর্যটক শুধু নয়,বনকর্মী এবং আধিকারিকদের জন্য একইভাবে লাঘু হয়।

যেমন বিভিন্ন সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বিভিন্ন বন্যপ্রানীর সুমারির সময় ব্রেক ফাস্ট,লাঞ্চের জন্য বা টিফিনের জন্য প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ,প্লাস্টিকের জলের বোতল নিয়ে ঢোকার অভিযোগ পেয়েছি।এমনকি পর্যটকদের ক্ষেত্রেও এই অভিযোগ পেয়েছি।তাই জঙ্গলের বন সুরক্ষা এবং পরিবেশ সুরক্ষা কমিটির সদস্য,ট্যুরিস্ট গাইড,জঙ্গল সাফারির গাড়ির চালক,বনরক্ষী,গাইড এবং বিভিন্ন ফিরেস্ট বীট ও রেঞ্জারদের এই বিষয়ে জানানো হয়েছে।তাদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বনমন্ত্রী আরও জানান,১৫ জুন থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর উত্তরবঙ্গের সমস্ত সংরক্ষিত বনাঞ্চল পর্যটকদের জন্য তিনমাসের মেয়াদে বন্ধ থাকছে।কিছু এলাকা অবশ্য খোলা থাকবে সেই খোলা অসংরক্ষিত এলাকায় এই নির্দেশ লাঘু হিবে।তারপর পুজোর আগে ফের জঙ্গল খুললে তখন সেই সংরক্ষিত এলাকায় লাঘু হবে এই প্লাস্টিক ফ্রী নির্দেশ।

পর্যটকদের বুকিং করা,জঙ্গল সাফারির সময় টিকিট কাটার সময় টিকিট বা বুকিং স্লীপে প্লাস্টিক বর্জনের নির্দেশ থাকবে।এরপর হাতে নাতে ধরা পড়লে পরিবেশ আইন অনুযায়ী স্পট ফাইন করা হবে। সংরক্ষিত বনাঞ্চল বা অসংরক্ষিত বনাঞ্চলের সংলগ্ন হোটেল,কটেজ,রিসর্ট,দোকানেও এই নির্দেশ মানার কথা বলা হচ্ছে বলে মন্ত্রী জানান।মুলত পুজার আগে জঙ্গল খুললেই এই নির্দেশ কার্যকরি করা হবে আইন মোতাবেক।

লাটাগুড়ি রিসর্ট ওনার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন র সম্পাদক দিব্যেন্দু দেব এই বিষয়ে বলেন,খুভ ভাল উদ্যোগ।আমরা বরাবর পর্যটকদের আবেদন করে থাকি প্লাস্টিক জাত কিছু ব্যবহার না করতে।তবে সরকারি নির্দেশ আসলে আমরা সেটি অবশ্যই পর্যটকদের ক্ষেত্রে ব্যবহারের উদ্যোগ নেবো।(NA)

Please follow and like us: