ইলেকট্রনিক জঞ্জাল (ই–কচরা) থেকে স্মার্টফোন, ল্যাপটপ বানাবে অস্ট্রেলিয়ার এক প্রবাসী ভারতীয় বৈজ্ঞানিক

gaa

সিডনী, ৯ এপ্রিল: এবার থেকে আর পুরনো সামগ্রী কাবারি খানায় দিতে হবে না। বাড়িতে কোনও পুরনো সামগ্রী থাকলে তা ফেলেও দিতে হবে না। পুরনো সামগ্রীর প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী সেগুলি রিসাইক্লিন করা তা পুনরায় ব্যবহারের উপযোগী করে তোলে হবে। এমনই একটি সিস্টেম মাইক্রোফ্যাক্টরি চালু করল এক প্রবাসী ভারতীয়। তিনি নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয় (ইউএনএসডব্লু) থেকে আইআইটি প্রশিক্ষিত এক অস্ট্রেলিয়ার বৈজ্ঞানিক। যা কিনা ইলেকট্রনিক জঞ্জাল (ই–কচরা) থেকে স্মার্টফোন, ল্যাপটপ জাতীয় জিনিস পুনরায় বানিয়ে দেওয়া যাবে। ইকোনমিক টাইমস সূত্রে জানা গেছে, সেন্টর ফর সস্টেনেবল মটিরিয়ল্স রিসার্চ অ্যান্ড টেকনোলজির (স্মার্ট) নির্দেশক এবং ইউএনএসডব্লুর মটিরিয়ল সাইন্টিস্ট প্রোফেসর বীনা সহজবালা জানিয়েছেন, এরফলে এখন থেকে যেগুলি ব্যবহারের অনুপযোগী জিনিসপত্র রয়েছে যেমন প্লাস্টিক, গ্লাস ইত্যাদি, সেগুলি ব্যবহারের উপযোগী করে তোলা হবে। শুধু তাই নয়, ইলেকট্রনিক জিনিস, কম্পিউটারের সার্কিট বোর্ডের ক্ষেত্রেও এটি উপযোগী করে তোলা সম্ভব হবে। তিনি বলেন, যে সব অপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র জ্বালিয়ে দেওয়া হয় বা মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়, সেইসব জিনিসগুলিকে রিসাইক্লিন করা হবে। যা থেকে ল্যাপটপ বা স্মার্টফোনও তৈরি করা যেতে পারে। প্রসঙ্গত, বীনা সহজবালার জন্ম হয়েছিল মুম্বইয়ে। (এনএ)

 

Please follow and like us: