নতুন মারন গেম “মোমো”

55

জলপাইগুড়ি,২১ আগস্ট : মোমো খেয়েছেন এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন।কিন্তু এই মোমো নামই যে সোস্যাল মিডিয়ায়।প্রাণঘাতী হয়ে ওঠার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।কোতোয়ালি থানার পান্ডাপাড়া এলাকার ছাত্রী কবিতা রায়।জলপাইগুড়ি প্রসন্নদেব মহিলা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী। বাড়িতে মায়ের সাথে ঝগড়া করার পর নিজেই রাগে অভিমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে “ মরে যাবো” বলে পোস্ট করাতেই বিপত্তি বাঁধে। অতি অল্প সময়েই কবিতার হোয়াটসঅ্যাপে একটি ম্যাসেজ আসে।যে নম্বর থেকে ম্যাসেজ আসে সেই নম্বর ছিল কবিতার অপরিচিত। এরপর কবিতা পাল্টা সেই নম্বরে জিজ্ঞেস করলে কে কবিতা বলে উত্তর আসে। যারপরনাই কবিতা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে।এই ম্যাসেজ নিয়ে কবিতা তার দাদাকে জানালে দাদা তাকে সতর্ক করেন। কবিতা নিজেই জানিয়েছেন,অনেক ব্লু হোয়েল জাতীয় মারন গেমের কথা শুনে ছিল। তিনি কখনো এই কাজ করবেন না।যাতে অন্য কারো সাথে সাথে না ঘটে তারজন্য মঙ্গলবার কবিতা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানায়। ইতিমধ্যেই এই পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ বলে কোতোয়ালি থানার আই সি বিশ্বাশ্রয় সরকার জানিয়েছেন।(এনএ)

Please follow and like us: