কলকাতা হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ উদ্বোধনের প্রস্তুতি তুঙ্গে জলপাইগুড়িতে

ako 11

অরুণ কুমারঃ অবশেষে জলপাইগুড়িতে কলকাতা হাইকোর্টের সারকিত বেঞ্চ এর উদবোধন হতে  চলেছে আগামি ৯ই মার্চ ,  যেখানে থাকবেন কলকাতা হাইকোর্টের অ্যাক্টিঙ চীফ জাস্টিস বিশ্বনাথ সমাদ্দার ,রাজ্যপাল  কেশরীনাথ ত্রিপাঠি  এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ,রাজ্যের আইন ও বিচার বিভাগীয় মন্ত্রী সহ থাকছেন ৩৫ জন হাইকোর্টের বিচারপতিও ।  ৯ই মার্চ এর উদবধন হলেও সরকারী ভাবে সারকিত বেঞ্চের কাজ অর্থাৎ মামলা শুনানির কাজ আরম্ভ হবে ১১ই মার্চ থেকে ।

আগামি ৯ ই মার্চ যে ভবনে এই সার্কিট বেঞ্চের যাত্রা আরম্ভ হতে চলেছে , সেটি জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের অতিথি বাংলো , এখানে অস্থায়ী ভাবে এই সার্কিট বেঞ্চের কাজ আরম্ভ হবে ।স্থায়ী  পরিকাঠামোর জন্য রাজ্য সরকার ৩১ নং জাতীয় সড়কের ধারে পাহাড়পুরে  কম্পজিট কম্পপ্লেক্স এলাকায় ৪৫ একড় জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে ,ও সেই সঙ্গে স্থায়ী  পরিকাঠামো নির্মাণের জন্য ৩৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে ।

উত্তেরবঙ্গের চারটি জেলা দার্জিলিং ,কালিম্পং ,জলপাইগুড়ি ও কোচবিহার এই বেঞ্চের আওতায় আসবে ,মামলার সুনানি, গ্রহণ সুনানি এবং নিস্পত্তি জলপাইগুড়ি বেঞ্চে হবে বলে হাইকোর্টের রেজিস্টার জেনারেল এর বিগ্যপ্তিতে জানা গিয়েছে ।১১ মার্চ থেকে কাজ শুরু হওয়ার কথা জলপাইগুড়ি সার্কিট বেঞ্চের। এই সংক্রান্ত নির্দেশিকাও জারি করেছে রাজ্য সরকার।

এই সার্কিট বেঞ্চের উদ্বোধন উপ লক্ষ্যে চলেছে জোর প্রস্তুতি ,জেলা পুলিশ ও প্রশাসন , পূর্ত , কারিগরি , জনস্বাস্থ্য , সহ যাতায়াত নিয়ন্ত্রনের ক্ষেত্রে পুলিশ ও সিভিক বাহিনীর পাশাপাশি পুরসভাও তার পরিষেবা ঠিক রাখতে প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে ।  সার্কিট বেঞ্চের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ভিআইপিদের আগমনকে কেন্দ্র কেন্দ্র করে শহর কে সম্পূর্ণ নিরাপত্তার চাদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে বলে জেলার পুলিশ সুপার অমিতাভ মাইতি জানিয়েছেন।

Please follow and like us: